Note: Now you can download articles as PDF format
  • Snacks

নিরামিষ মোমো

  • কর্নিয়া ভাওয়াল
  • ৬০ মিনিট
  • Indian
  • May 3, 2020
  • 175 বার পড়া হয়েছে

উপকরণঃ

মোমোর উপকরণ -

১) ময়দা - ৩ কাপ
২) বাঁধাকপি কুচি - ১/২ কাপ
৩) গাজর কুচি - ১ কাপ
৪) পেয়াজ কুচি - ২ কাপ
৫) লঙ্কা কুচি - ২ চা চামচ
৬) আদা কুচি - ১ টেবিল চামচ
৭) রসুন কুচি - ১ টেবিল চামচ
৮) ধনেপাতা কুচি - ১ টেবিল চামচ
৯) মাখন - ৩ চা চামচ
১০) লবণ - স্বাদমতো

স্যুপের উপকরণ -

১) গাজর কুচি - ১/২ কাপ
২) পেয়াজ কুচি - ১/২ কাপ
৩) আদা কুচি - ১ টেবিল চামচ
৪) ধনেপাতা কুচি - ৩ টেবিল চামচ
৫) কর্নফ্লাওয়ার - ১/৪ কাপ
৬) মাখন - ২ চা চামচ
৭) লঙ্কা কুচি - ১ চা চামচ
৮) লবণ - স্বাদমতো

চাটনির উপকরণ -

১) টমেটো - ১ টি
২) লঙ্কা - ৩ টি
৩) লবণ - স্বাদমতো

প্রণালীঃ

 

১) ৩ কাপ ময়দায় ১/২ চা চামচ লবণ, এবং জল সহযোগে ভালো করে বেশ কিছুক্ষণ মাখতে হবে, যতক্ষণ না ময়দার মণ্ড নরম তুলতুলে হয়। এরপর ময়দার মণ্ডতে অতি সামান্য তেল মেখে কিছুক্ষণ রেখে দিন।

২) একটি কড়াই তে ৩ চামচ মাখন দিন, মাখন গলে গেলে তাতে বাঁধাকপি কুচি, গাজর কুচি, পেয়াজ কুচি, লঙ্কা কুচি, আদা কুচি, রসুন কুচি, ধনেপাতা কুচি দিয়ে দিন। স্বাদমতো লবণ দিন। একটু নরম হলে মোমোর পুর নামিয়ে নিন।

৩) এরপর ময়দার লেচি কেটে গোল এবং পাতলা করে বেলে নিন। তাতে পুর ভরে মন মতো আকার দিন।

৪) একটি কড়াইতে ৪ কাপ জল, গাজর কুচি, পেয়াজ কুচি, আদা কুচি, ধনেপাতা কুচি, মাখন, লঙ্কা কুচি দিয়ে দিন হালকা আঁচে গরম হলে তাতে কর্নফ্লাওয়ার গুলিয়ে দিন। (মোমো বানানোর নির্দিষ্ট বাসন না থাকলে কড়াই বা সসপ্যান ব্যবহার করতে পারেন) হালকা আঁচে স্যুপ তৈরি হবে।

৫) ঝাঁঝড়ি বা বহু ছিদ্র যুক্ত থালায় তেল মেখে তা স্যুপের কড়াইয়ের ওপর বসিয়ে নিন। কড়াই এবং ঝাঝড়ি থালা যেনো এক মাপের হয়। এরপর কাঁচা মোমো গুলো ঝাঁঝড়ি থালায় বসিয়ে, অন্য বাসন দিয়ে ঢেকে দিন। (মনে রাখবেন স্যুপ যেনো ঝাঁঝড়ি থালার বেশ কিছু নীচে থাকে।

৬) টমেটো ও লঙ্কা এবং স্বাদমতো লবণের পেষ্ট বানিয়ে নিন।

৬) মোমো সেদ্ধ হলে গরম গরম স্যুপ এবং চাটনি সহযোগে পরিবেশন করুন।

পরিচিতি:

জন্ম ১৯৯৭ সালের ২৮ শে জুন উত্তরবঙ্গ তথা ডুয়ার্সের রাজকন্যা জলপাইগুড়ি শহরে। পড়াশোনা ও বড়ো হয়ে ওঠা ধূপগুড়ি নামক অখ্যাত শহরে। ছোটো থেকেই সাহিত্যের প্রতি অনুরাগ প্রবল‌ ছিল তার, বড়ো হয়ে ওঠার সাথে সাথে গড়ে ওঠে আত্মার সম্পর্ক। দশম শ্রেণীতে প্রথম কবিতা লেখেন। পরবর্তীতে অনেক কবিতা লিখেছেন কিন্তু তা‌ প্রকাশ করা সম্ভব হয়নি। কারিগরী বিদ্যায় চতুর্থ বর্ষে পাঠকালীন সময়ে কবির "বোকা বাক্স" কবিতা প্রথম প্রকাশ পায় "কবিতা কুটির" লিটিল ম্যাগাজিনে চুঁচুড়া সংখ্যায়। এরপর একে একে কবিতা কুটিররের "একশো কবিতা", "পানাগড় সংখ্যা সংখ্যা", " কাব্য সংকলন ১" এছাড়াও সাতকাহন প্রকাশনীর বৈশাখী সংখ্যা "বাঙালি ও ভুরিভোজ", শব্দ-সাঁকোর "শারদ সংখ্যা" -তে কবির কবিতা স্থান পায়। ২০১৯ সালের ১১ ই আগস্ট সাতকাহন প্রকাশনীর "কালবেলার প্রতিচ্ছবি" নামক কাব্য সংকলনে একসাথে ছয়টি কবিতা প্রকাশ পায়। বর্তমানে তিনি "সাতকাহন প্রকাশনী" -এর একজন সদস্য, এবং "পাণ্ডুলিপি" ওয়েব ম্যাগাজিনের সম্পাদক পদে আসীন আছেন।
শেয়ার করুনঃ